প্রকাশিত: রাত ৯ টা ২৯ মিনিট, ২৮ জুলাই ২০১৭, শুক্রবার | আপডেট: রাত ৯ টা ২৯ মিনিট, ২৮ জুলাই ২০১৭, শুক্রবার
নিউজ ডেস্ক:
সরকারের কৃষি ও কৃষকবান্ধব নীতির সঙ্গে সঙ্গতি রেখে টেকসই উন্নয়নের নির্ধারিত লক্ষ্যের প্রথম ও প্রধান তিনটি লক্ষ্য তথা দারিদ্র্য বিমোচন, ক্ষুধা মুক্তি এবং সুস্বাস্থ্য অর্জনের নিমিত্তে কৃষি ঋণ সরবরাহের মাধ্যমে কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে আজ ২৭ জুলাই, ২০১৭ তারিখে কৃষি ঋণ বিভাগ, বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরের কৃষি ও পল্লী ঋণ নীতিমালা ও কর্মসূচি প্রণয়ন করা হয়েছে। এপ্রেক্ষিতে, বাংলাদেশ ব্যাংক, প্রধান কার্যালয়ের জাহাঙ্গীর আলম কনফারেন্স হলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর জনাব এস এম মনিরুজ্জামান ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরের কৃষি ও পল্লী ঋণ নীতিমালা ও কর্মসূচির উল্লেখযোগ্য বিষয়াদি সংক্ষেপে আলোকপাত করেন। কৃষি ও পল্লী ঋণ নীতিমালা ও কর্মসূচি প্রণয়ন সংক্রান্ত এ সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ব্যাংকের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাগণ এবং দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।
মোট ২০,৪০০.০০ (বিশ হাজার চারশত মাত্র) কোটি টাকা ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে চলতি (২০১৭-২০১৮) অর্থবছরে বাংলাদেশ ব্যাংকের বার্ষিক কৃষি ও পল্লী ঋণ নীতিমালা ও কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। যা বিগত ২০১৬-১৭ অর্থবছরের তুলনায় প্রায় ১৬.২৪ শতাংশ বেশি। কৃষি ও পল্লী ঋণের ক্রমবর্ধমান চাহিদা বিবেচনায় চলতি অর্থবছরে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বাণিজ্যিক ও বিশেষায়িত ব্যাংকসমূহের জন্য ৯,৫৯০.০০ কোটি টাকা এবং বেসরকারী ও বিদেশী বাণিজ্যিক ব্যাংকসমূহের জন্য ১০,৮১০.০০ কোটি টাকা কৃষি ও পল্লী ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।
বিগত ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ব্যাংকসমূহ মোট ২০,৯৯৮.৭০ কোটি টাকা কৃষি ও পল্লী ঋণ বিতরণ করেছে, যা মোট লক্ষ্যমাত্রার প্রায় ১১৯.৬৫%। বিগত অর্থবছরে মোট ৩৮,৫৬,৬৩৫ জন কৃষি ও পল্লী ঋণ পেয়েছেন, যার মধ্যে ব্যাংকসমূহের নিজস্ব নেটওয়ার্ক ও এমএফআই লিংকেজের মাধ্যমে ১৮,৪৭,০৬৫ জন নারী প্রায় ৬,২৪০.৬৬ কোটি টাকা কৃষি ও পল্লী ঋণ পেয়েছেন। উক্ত অর্থবছরে ২৯,৭৪,৪০৭ জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক চাষি বিভিন্ন ব্যাংক থেকে প্রায় ১৪,৯৩০.৪৬ কোটি টাকা এবং চর, হাওর প্রভৃতি অনগ্রসর এলাকার ৮,৭৩১ জন কৃষক প্রায় ৪০.০০ কোটি টাকা কৃষি ও পল্লী ঋণ পেয়েছেন।
পরিবেশবান্ধব ও টেকসই কৃষি ব্যবস্থা গড়ে তুলে জনসাধারণের খাদ্য নিরাপত্তা ও পুষ্টি নিশ্চিতকরণের ক্ষেত্রে উদ্ভূত সমসাময়িক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা এবং কৃষকদের নিকট কৃষি ঋণ সহজলভ্য করার লক্ষ্যে বর্তমান নীতিমালা ও কর্মসূচিতে বেশ কিছু যুগোপযোগী বিষয় সংযোজিত হয়েছে। এই নীতিমালার উল্লেখযোগ্য নতুন সংযোজিত বিষয়সমূহ হচ্ছে ঃ
কৃষি খাতের জন্য নির্ধারিত সুদহারের সর্বোচ্চ সীমা ১০% হতে কমিয়ে ৯% এ নির্ধারণ; ব্যাংকগুলোর বার্ষিক লক্ষ্যমাত্রার ন্যূনতম ১০ শতাংশ প্রাণিসম্পদ খাতে বিতরণের বাধ্যবাধকতা আরোপ;মৎস্য সম্পদ খাতে স্বল্পমেয়াদি ঋণের পাশাপাশি মেয়াদি ঋণ বিতরণের ব্যবস্থা গ্রহণ;ক্ষুদ্র, প্রান্তিক কৃষক ও বর্গাচাষিসহ অন্যান্য কৃষকদেরকে সহজ পদ্ধতিতে একক/গ্রুপ ভিত্তিতে কৃষি ঋণ প্রদানের ব্যবস্থা করণ;
কৃষি খাতের অগ্রযাত্রায় যেসকল সবজি ও ফসলের উন্নত জাত উদ্ভাবিত হয়েছে সেগুলির উৎপাদনে ব্যাংক ঋণ সুবিধা প্রদানের লক্ষ্যে কাসাভা, ব্রোকলি এবং স্কোয়াস-কে ফসলভিত্তিক ঋণ নিয়মাচারে অন্তর্ভুক্ত করণ;
ন্যায্য মূল্য প্রাপ্তির নিমিত্তে আলু চাষীদের ফসল উৎপাদনের পর ঋণ পরিশোধের জন্য অতিরিক্ত ৩ মাস গ্রেস পিরিউড প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণ ;
অগ্রাধিকার প্রাপ্ত খাত হিসেবে সকল প্রকার কৃষি ও পল্লী ঋণে নির্ধারিত সুদ ব্যতীত অন্য কোন প্রকার চার্জ, প্রসেসিং ফি/মনিটরিং ফি ইত্যাদি ধার্য্য না করার নির্দেশনা প্রদান, ইত্যাদি ।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
১৬ ডিসেম্বর ২০১৭
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
আজ শনিবার মহান বিজয় দিবস। এ দিনটি বাঙালি জাতির হাজার বছরের শৌর্যবীর্য এবং বীরত্বের এক অবিস্মরণীয় দিবস। বীরের জাতি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করার বিস্তারিত
১৬ ডিসেম্বর ২০১৭
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
রাজধানীর ঐতিহ্যবাহী ইডেন মহিলা কলেজের উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস উৎযাপন উপলক্ষে "বিজয় মেলা ২০১৭" আয়োজনের মাধ্যমে এক আনন্দঘন পরিবেশে কলেজ ক্যাম্পাসে বিস্তারিত
০৩ ডিসেম্বর ২০১৭
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
নাটকের গল্পে ৯ বছর বয়সি অলির চরিত্রটি রূপায়ন করেছে শান্ত নামের এক ছেলে। মজার ব্যাপার হলো- সবাই এখন শান্তর সঙ্গে সেলফি বিস্তারিত
© স্বত্ব বিএমটিআইনিউজ ২০১৫ - ২০১৭
সম্পাদক :
মিঞা মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক : শাহআলম শুভ
৩৭৩,দিলু রোড (তৃতীয় তলা)মগবাজার, ঢাকা-১২১৭
ফোন: ০২৯৩৪৯৩৭৩, ০১৯৩৫ ২২৬০৯৮
ইমেইল:bmtinews@gamil.com