প্রকাশিত: বিকাল ৫ টা ৩৭ মিনিট, ১৮ জুলাই ২০১৭, মঙ্গলবার | আপডেট: বিকাল ৫ টা ৩৭ মিনিট, ১৮ জুলাই ২০১৭, মঙ্গলবার
ফরহাদ হোসেন, ভোলা প্রতিনিধি :
আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাসান মাহমুদের পর নিজ হাতে কাজ করে আলোচনায় আসলেন ভোলা- ২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল। সোমবার দুপুরে নিজ নির্বাচনী এলাকা বোরহানউদ্দিনের ৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেঝের ময়লা নিজ হাতে পরিষ্কার করে পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচীতে অংশ নেন এমপি মুকুল। হাসপাতালটির বেহাল দশা দেখে তিনি নিজেই এর পরিচর্যায় অংশ নেন। এরই ফাঁকে ক্যামেরা বন্দি হয়ে সে ছবি ফেজবুকে পোস্ট করার পর সামাজি যোগাযোগ মাধ্যমে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।
বেশ কয়েকদিন যাবত বিভিন্ন গণমাধ্যমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটির বেহাল দশা নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়ে আসলেও কর্তৃপক্ষ এর পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতায় কোন উদ্যেগ নেয় নি। এর প্রেক্ষিতে সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল কোন ঘোষণা ছাড়াই ১৬ জুলাই হাসপাতাল পরিদর্শনে যান। হাসপাতালের বেহাল দশা দেখে ঘোষণা দেন নিজ উদ্দ্যেগে প্রতি মাসে অন্তত একবার হাসপাতাল পরিচ্ছন্নতার কাজে অংশ নিবেন। সেই ধারাবাহিকতায় সোমবার হাসপাতালে গিয়ে নিজ হাতে মেঝেসহ বেড পরিষ্কারে অংশ নেন। এসময় তার সাথে ছিলেন বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল কুদ্দুস, বোরহানউদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্য (ওসি) মাহমুদুর রহমান, বোরহানউদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্য (ওসি তদন্ত) অসিম কুমার সিকদারসহ স্থানীয় আ’লীগ ও তার অংগ সংগঠনের নেতারা ।
এ বিষয়ে ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল তার ব্যক্তিগত ফেজবুকে এক এস্টেটাসে বলেন, মিডিয়া ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বোরহানউদ্দিন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে প্রায়ই বিভিন্ন অভিযোগ চোখে পড়ে আমার। যা আমাকে রীতিমত পীড়া দেয়। আজ কোন পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই হাসপাতাল পরিদর্শনে বের হয়েছিলাম। সেবার মান সন্তোস জনক হলেও পরিবেশগত দিকের কারনে তা বদনামে পরিনত হচ্ছে।
হাসপাতালে ভর্তি প্রতিটা রোগীর সাথে কথা বলেছি, হাসপাতালের রান্না ঘরেও ঢুকেছি। শুধু সরকারী বরাদ্দের দিকে তাকিয়ে থাকলে এই নোংরা পরিবেশ থেকে আমরা কখনোই বেড়িয়ে আসতে পারবো না।
তাই আমার নিজের ব্যাক্তিগত উদ্যেগেই আগামী কাল থেকে প্রতি মাসে অন্তত ১ বার আমি হাসপাতাল পরিচ্ছন্নতায় অংশ নেব। আমার সাথে সমাজের বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষ ইচ্ছা থাকলে অংশ গ্রহণ করতে পারেন এই কাজে।
আমরা যখন সমাজের প্রতিটি মানুষের হাতকে এক জায়গায় রাখতে পারব তখনই আমরা স্বপ্ন দেখতে পারব একটা ব্যাতিক্রম কিছুর। আসুন নিজের চারপাশটাকে নিজেই পরিস্কার রাখি। রোগ মুক্ত একটি সুস্থ সমাজ গড়ি।
স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেঝের ময়লা এমপির নিজ হাতে পরিষ্কার করার ছবি ফেজবুকে পোস্ট করার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ কিছু মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। অনেকে উপজেলার অভিবাবকের এই কাজটিকে মহৎ হিসেবে উল্ল্যেখ করেছেন। কেউ কেউ বলছেন এ কাজটি আরো আগে শুরু করা উচিত ছিলো। অন্যদিকে আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে আলোচনায় আসার জন্য তার এই উদ্যোগ মনে করেন। তবে সে যা উদ্দেশ্যই হোক না কেন দীর্ঘ দিনের জড়াজীর্ণএই হাসপাতালটির সুদিন ফিরে আসবে এমনটাই মনে করেন উপজেলাবাসী।

ফরহাদ হোসেন, ভোলা প্রতিনিধি: আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাসান মাহমুদের পর নিজ হাতে কাজ করে আলোচনায় আসলেন ভোলা- ২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল। সোমবার দুপুরে নিজ নির্বাচনী এলাকা বোরহানউদ্দিনের ৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেঝের ময়লা নিজ হাতে পরিষ্কার করে পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচীতে অংশ নেন এমপি মুকুল। হাসপাতালটির বেহাল দশা দেখে তিনি নিজেই এর পরিচর্যায় অংশ নেন। এরই ফাঁকে ক্যামেরা বন্দি হয়ে সে ছবি ফেজবুকে পোস্ট করার পর সামাজি যোগাযোগ মাধ্যমে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।
বেশ কয়েকদিন যাবত বিভিন্ন গণমাধ্যমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটির বেহাল দশা নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়ে আসলেও কর্তৃপক্ষ এর পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতায় কোন উদ্যেগ নেয় নি। এর প্রেক্ষিতে সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল কোন ঘোষণা ছাড়াই ১৬ জুলাই হাসপাতাল পরিদর্শনে যান। হাসপাতালের বেহাল দশা দেখে ঘোষণা দেন নিজ উদ্দ্যেগে প্রতি মাসে অন্তত একবার হাসপাতাল পরিচ্ছন্নতার কাজে অংশ নিবেন। সেই ধারাবাহিকতায় সোমবার হাসপাতালে গিয়ে নিজ হাতে মেঝেসহ বেড পরিষ্কারে অংশ নেন। এসময় তার সাথে ছিলেন বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল কুদ্দুস, বোরহানউদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্য (ওসি) মাহমুদুর রহমান, বোরহানউদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্য (ওসি তদন্ত) অসিম কুমার সিকদারসহ স্থানীয় আ’লীগ ও তার অংগ সংগঠনের নেতারা ।
এ বিষয়ে ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল তার ব্যক্তিগত ফেজবুকে এক এস্টেটাসে বলেন, মিডিয়া ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বোরহানউদ্দিন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে প্রায়ই বিভিন্ন অভিযোগ চোখে পড়ে আমার। যা আমাকে রীতিমত পীড়া দেয়। আজ কোন পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই হাসপাতাল পরিদর্শনে বের হয়েছিলাম। সেবার মান সন্তোস জনক হলেও পরিবেশগত দিকের কারনে তা বদনামে পরিনত হচ্ছে।
হাসপাতালে ভর্তি প্রতিটা রোগীর সাথে কথা বলেছি, হাসপাতালের রান্না ঘরেও ঢুকেছি। শুধু সরকারী বরাদ্দের দিকে তাকিয়ে থাকলে এই নোংরা পরিবেশ থেকে আমরা কখনোই বেড়িয়ে আসতে পারবো না।
তাই আমার নিজের ব্যাক্তিগত উদ্যেগেই আগামী কাল থেকে প্রতি মাসে অন্তত ১ বার আমি হাসপাতাল পরিচ্ছন্নতায় অংশ নেব। আমার সাথে সমাজের বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষ ইচ্ছা থাকলে অংশ গ্রহণ করতে পারেন এই কাজে।
আমরা যখন সমাজের প্রতিটি মানুষের হাতকে এক জায়গায় রাখতে পারব তখনই আমরা স্বপ্ন দেখতে পারব একটা ব্যাতিক্রম কিছুর। আসুন নিজের চারপাশটাকে নিজেই পরিস্কার রাখি। রোগ মুক্ত একটি সুস্থ সমাজ গড়ি।
স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেঝের ময়লা এমপির নিজ হাতে পরিষ্কার করার ছবি ফেজবুকে পোস্ট করার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ কিছু মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। অনেকে উপজেলার অভিবাবকের এই কাজটিকে মহৎ হিসেবে উল্ল্যেখ করেছেন। কেউ কেউ বলছেন এ কাজটি আরো আগে শুরু করা উচিত ছিলো। অন্যদিকে আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে আলোচনায় আসার জন্য তার এই উদ্যোগ মনে করেন। তবে সে যা উদ্দেশ্যই হোক না কেন দীর্ঘ দিনের জড়াজীর্ণএই হাসপাতালটির সুদিন ফিরে আসবে এমনটাই মনে করেন উপজেলাবাসী।
এস/অালম
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
০২ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
ভালো আছি! চশমাটা এই নিয়ে তিনবার ভাঙলো,তাও ভালো ফ্রেম, তাপ্তি দেওয়া যায়,যদি কাঁচ হতো ! শীতে একটা সোয়েটারের খুব দরকার,না থাক! এখন বিস্তারিত
৩০ ডিসেম্বর ২০১৭
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
উৎসবমুখর পরিবেশে ১৯ বছর পর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে সিনেট রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচন-২০১৭। মোট ২টি কেন্দ্রে ১১৪টি বুথে সকাল বিস্তারিত
২৪ ডিসেম্বর ২০১৭
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
সুন্দর স্বপ্নকে কিভাবে প্রয়োজনীয় সুশিক্ষার মাধ্যমে সুযোগে পরিণত করা যায়, তা জানাতেই ড্রিম ডিভাইজার টিম কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে, ২৩ ডিসেম্বর, বিস্তারিত
© স্বত্ব বিএমটিআইনিউজ ২০১৫ - ২০১৭
সম্পাদক :
মিঞা মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক : শাহআলম শুভ
৩৭৩,দিলু রোড (তৃতীয় তলা)মগবাজার, ঢাকা-১২১৭
ফোন: ০২৯৩৪৯৩৭৩, ০১৯৩৫ ২২৬০৯৮
ইমেইল:bmtinews@gamil.com