প্রকাশিত: বিকাল ৩ টা ৫৩ মিনিট, ১৫ জুলাই ২০১৭, শনিবার | আপডেট: বিকাল ৩ টা ৫৩ মিনিট, ১৫ জুলাই ২০১৭, শনিবার
এবিএম সোলায়মান:
ঢাকার অদূরে বুড়িগঙ্গার পাড়ে সদ্য জেগে ওঠা কামরাঙ্গাীর চর। ২০১২ সালের পূর্বে এই চরাঞ্চলটি ইউনিয়ন পরিষদের অন্তর্ভূক্ত ছিল। বর্তমান এটি সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন। সিটি কর্পোরেশনের পূর্বে এখানকার রাস্তাঘাট, শিক্ষাব্যবস্থা, চিকিৎসা এবং জীবন যাত্রার মান ছিল নিম্নমানের। সিটি কর্পোরেশনের অন্তর্ভূত হওয়ার পর থেকে আগের তুলনায় বাজেট বেশি বরাদ্দ থাকায় এই অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থা সহ জীবনযাত্রার সকল ধরণের কাজের দ্রুত উন্নত হচ্ছে।যার ফলে আগের চেয়ে বেড়ে যাচ্ছে এখানকার জমির দাম।

কামরাঙ্গীরচরে বসবাসরত আদিবাসী মোহাম্মদ শাকিল আহমেদ বিএমটিআই নিউজকে বলেন, 'আমার জন্ম এখানে ,বয়স এখন পঞ্চাশ। আমারা ছোটবেলা দেখতাম অনেক দূরে দূরে কয়েক জায়গায় বাড়ি-ঘর। লোকজন খুবই কম ছিল। এই কামরাঙ্গীর চরটা নদীর মতই ছিল, তখন বেড়িবাঁধ রাস্তা হয় নাই এহানকার (এখানকার) মানুষ নৌকা করে সিকসন যাইত (যেত) । সেখান থাইকা(থেকে) রিক্সা কইরা (করে) বা পায়ে হাঁইটা(হেটে) তারপর শহরে যাইত (যেতাম)। এহন (এখন) তো জাগা জমি বরাট(ভরাট) হইছে(হচ্ছে), ভাল রাস্তাঘাট হইছে(হচ্ছে),মানুষ জনের কষ্ট কমছে।

আজ সকালবেলা কামরাঙ্গীরচরের কিছু রাস্তা পরিদর্শন করে দেখা যায়, কিছু কিছু রাস্তার কাজ শতভাগ সম্পন্ন হয়েছে এবং কিছু কিছু রাস্তার কাজ বিরামহীনভাবে চলছে। পূর্বে রাস্তাগুলোতে দুইপাশে ছিল সরু ড্রেন এবং রাস্তাঘাট ছিল চাপা যার ফলে সামান্য জ্যামেই গাড়ি চলাচলের ব্যাঘাত ঘটত। এখন এইসব রাস্তা খুরে বসানো হচ্ছে মোটা পাইপের প্রশস্ত ড্রেন এবং পূর্বের তুলনায় করা হচ্ছে রাস্তার প্রশস্তিকরণ।ফলে ভেঙ্গেফেলা হচ্ছে রাস্তার পাশে গড়ে ওঠা দোকানপাট এবং ঘরবাড়ি।

৫৬ নং ওয়াড কাউন্সিলর, মোহাম্মদ হোসেন বিএমটিআইকে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেত্রীত্বে এবং আমাদের মন্ত্রী মহোদয়, এ্যাডভোকেট মোহাম্মদ কামরুল ইসলামের অক্রান্ত প্রচেষ্টায় ২০১২ সালে এই কামরাঙ্গীরচর সিটি কর্পোরেশনের অন্তর্ভূত হওয়ার পর থেকে বিশেষ করে যোগাযোগব্যবস্থার দ্রুত উন্নত হচ্ছে। পূর্বে রাস্তাগুলো ছিল চাপা। এখন প্রধান প্রদান রাস্তাগুলো ১০-১২ ফুট প্রশস্ত করা হচ্ছে। এসব রাস্তার কাজ কবে শেষ হবে জানত চাইলে কাউন্সিলর বলেন, আমরা ঠিকাদারকে কাজ দিয়েছি তিনি তার সুবিধা মত কাজ করছেন। তাবে তিনি আশা করেন ২০১৭ সালের মধ্যেই তার ওয়ার্ডের রাস্তার সকল কাজ হবে। চরটির উত্তর পাশে অথাৎ বেড়িবাঁধ রাস্তা এবং চরের মাঝামাঝিতে অবস্থিত বুড়িগঙ্গার শাখা নদীটি প্রায় মৃত্যের পথে। শাখা নদীটির দুইপাশ দিয়েই গৃহস্থালির ময়লা-আর্বজনা ফেলে ভরাট করে ফেলছে অনেক জায়গা। কে বা কারা এসব জমি বরাট করছে তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা নিয়ে আর পারছি না বার বার নিষেধ করার পরেও তারা এমন করছে। কারা করছে এবং তারা কি কোন রাজনৈতিক সংগঠনেরর সাথে যুক্ত আছেন কিনা? তার জানতে চাইলে কাউন্সিলর বলেন, কে বা কারা করছে তা স্পষ্ট জানা যায়নি, তবে তারা কোন রাজনৈতিক দলের লোক নন।

এই শাখাটি কি দিন দিন এভাবে প্রভাবশালীদের আওতাধীন হয়ে বিলীন হয়ে যাবে? এমনটি জানতে চাইলে তিনি বলেন, না এটা বিলীন হবেনা। এই শাখাটি নিয়ে সরকারের ব্যপক ধরণের পরিকল্পনা আছে। কেমন পরিকল্পনা তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখানে দ্বিতীয় হাতিরঝিল হবে। তার জন্য প্রথমে এসব দখলদারিদেরকে সরাতে হবে। এতোমধ্যে মোহাম্মদপুরের দিকে দখলমুক্ত কাজও চলছে।

বেড়িবাঁধ রাস্তার যানজট সম্পর্কে তিনি বলেন, বাবুবাজার টু গাবতলি গুরুত্বপূর্ণ একটি রাস্তা। এই রাস্তা যানজট সম্পর্কে আমি জানি। তবে সেটা দ্রুতই নিরসন হবে। বাবুবাজার টি গাবতলি একটি ফ্লাইওভার নির্মাণ করা হবে সেটা নিয়ে সরকারের ওপর মহলে কথা চলছে। আশা করছি খুব দ্রুতই এই বাজেট পাশ হবে।

রাজধানীর অতি নিকটে এই চরাঞ্চলটি এখন অনেকটাই পরিবর্তন এসেছে। উন্নয়নের এই জোয়ার দেখে আনন্দিত এখনকার এলাকাবাসী।


বিএমটিআই নিউজ / এন এস
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
একটা নদী উপহার পেয়েছি রটনার মত ছড়িয়ে যাচ্ছে , গুজব না সত্যি ! আমার একটা নদী আছে যদিও আমি নদী চাইনি চেয়েছি চাঁদ , তবু নদীই পেলাম বিস্তারিত
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
আশুলিয়ার নিশ্চিন্তপুর গ্রামের এক গৃহবধু দেবর ও ভাশুরের নির্যাতন, হয়রানিমূলক মামলাসহ বিভিন্ন কুৎসার হাত থেকে নিজের পরিবারের সদস্যদের বাঁচাতে সংবাদ সম্মেলন বিস্তারিত
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
ড্রিম ডিভাইজারের নিজস্ব উদ্ভাবিত স্বপ্ন- সুশিক্ষা- সুযোগ মডেলে সুশিক্ষায় স্বপ্নবুননে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করে। সুশিক্ষায় স্বপ্নবুননে বিশেষ আয়োজন হচ্ছে স্বপ্ন-আড্ডা। স্বপ্ন আড্ডার বিস্তারিত
© স্বত্ব বিএমটিআইনিউজ ২০১৫ - ২০১৭
সম্পাদক :
মিঞা মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক : শাহআলম শুভ
৩৭৩,দিলু রোড (তৃতীয় তলা)মগবাজার, ঢাকা-১২১৭
ফোন: ০২৯৩৪৯৩৭৩, ০১৯৩৫ ২২৬০৯৮
ইমেইল:bmtinews@gamil.com