প্রকাশিত: বিকাল ৩ টা ৩৯ মিনিট, ০২ জুন ২০১৭, শুক্রবার | আপডেট: বিকাল ৩ টা ৩৯ মিনিট, ০২ জুন ২০১৭, শুক্রবার
আবদুল্লাহ আল মামুন ও অহনা মিথুন
কাজী সিরাজুল ইসলাম।বর্তমানে তিনি বাংলাদেশের আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর অন্যতম সদস্য। আমিন জুয়েলার্স এর কর্ণধার, সাবেক এমপি ফরিদপুর ০১ আসন এবং প্রাইম ব্যাংকের পরিচালক। অগণিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা। অসাধারণ ব্যক্তিত্বের অধিকারী হিসেবে সকলের কাছে সুপরিচিত। এই উদার মনের মানুষটির সাক্ষাৎকার নিয়েছেন বিএমটিআই নিউজের চীফ রিপোর্টার আবদুল্লাহ আল মামুন ও অহনা মিথুন। বিএমটিআই নিউজ: স্যার আপনি কেমন আছেন?

কাজী সিরাজুল ইসলাম: আলহামদুল্লিাহ্ , ভালো আছি।

বিএমটিআই নিউজ:অাপনি এখন কি নিয়ে ব্যস্ত আছেন?

কাজী সিরাজুল ইসলাম: যেহেতু আমি একজন ব্যবসায়ী, ব্যবসার ব্যস্ততা তো থাকেই। তবে ইতোমধ্যেই আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেহেতু নির্বাচনের একটু আভাস দিয়েছেন এবং নির্বাচন কমিশনারেরও তোড়জোড় দেখা যাচ্ছে। নির্বাচন আসছে, সেজন্য সেদিক দিয়ে ব্যস্ততা রয়েছে। এখন প্রত্যেক মাসেই আমাকে এলাকায় ২-৩ বার করে যেতে হয়। প্রত্যেকের সাথে মিটিং করতে হয়। মুক্তিযুদ্ধাদের সাথে,আওয়ামী লীগের সাথে অনেকটা নির্বাচনের জন্য যা যা করতে হয় তারই প্রস্তুতি নিচ্ছি।

বিএমটিআই নিউজ: আপনি ফরিদপুর ০১ আসন থেকে বিগত দিনে দুইবার সংসদ সদস্য ছিলেন এবার যদি মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখহাসিনা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন দেন তাহলে দেশবাসী আশা করে যে আপনি মন্ত্রী হবেন- মন্ত্রী হলে আপনার নির্বাচিত এলাকায় উন্নয়নের কি কি পরিকল্পনা করেছেন ?

কাজী সিরাজুল ইসলাম: আমি দু’বার এমপি হয়েছি। ১৯৯৬ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় ছিল। সে সময় যথেষ্ট কাজ করেছি। স্কুল, কলেজে বিল্ডিং করেছি। প্রাইমারি স্কুলের টিচার ছিলনা, সেখানে নিয়োগ দিয়েছি। শিক্ষাখাতে অসাধারণ উন্নতি করেছি। যেহেতু আমি শিক্ষাখাতের একজন সদস্য ছিলাম।

বিএমটিআই নিউজ: আপনি একজন প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা বাংলাদেশের আওয়ামী লীগের উপদষ্টা মণ্ডলীর অন্যতম সদস্য আপনাকে যদি মন্ত্রীত্ব দেওয়া হয় তাহলে আপনি কোন মন্ত্রণালয় বেছে নিবেন? উক্ত মন্ত্রণালয়ের উন্নয়নে আপনি কি কি পরিকল্পনা গ্রহন করবেন?

কাজী সিরাজুল ইসলাম: আমার পছন্দের মন্ত্রণালয় হলো প্রথমে শিক্ষা মন্ত্রণালয় । যেহেতু আমি শিক্ষা নিয়ে অনেক কাজ করছি। তারপর সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়। কেননা এখানে সমাজের জন্য কাজ করা হয়।

বিএমটিআই নিউজ: দেশের সার্বিক উন্নয়নে এই মূহুর্তে করনীয় কি?

কাজী সিরাজুল ইসলাম: এখন আমাদের যে অগ্রগতি হচ্ছে; আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারনেই বিদেশীরা আমাদেরকে উন্নয়নের মডেল হিসেবে দ্বার করিয়েছে এবং আমাদের নেতাকে পৃথিবীর ১০ জন নেতার মধ্যে ১জন নেতা হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন।

বিএমটিআই নিউজ: মাদক ও সন্ত্রাসের হাত থেকে যুব সমাজকে রক্ষা করার জন্য আপনি কি পরামর্শ দিবেন?

কাজী সিরাজুল ইসলাম: এটা অনেক ভালো একটা প্রশ্ন। আমাদের যুব সমাজ কিন্তু অনেকটাই মাদকে আসক্ত হয়ে গেছে। এখানে সবচেয়ে করনীয় হলো আমাদের ঘর ঠিক করতে হবে আগে। আমাদের গার্ডিয়ানদের অবহেলার কারনে আজকে এই দশা। প্রথমেই করনীয় হলো -আমাদের সন্তানেরা কোথায় যায় কি করে এর প্রতি খেয়াল রাখা। তাদেরকে ব্যস্ত রাখতে হবে খেলাধুলায়। আর তাদেরকে সাংস্কৃতিক মনা করে তুলতে হবে।

বিএমটিআই নিউজ : দেশের শ্রেষ্ঠ স্বর্ণ ব্যবসায়ী এবং স্বর্ণ ব্যবসায়ীর নেতা হিসেবে দেশের স্বর্ণ ব্যবসায়ের উন্নয়নে জন্য কি করনীয় আছে বলে আপনি মনে করেন?

কাজী সিরাজুল ইসলাম: আমাদের দেশের মানুষ গরীব হোক আর বড় লোক; আমাদের দেশে আবহমান থেকেই প্রত্যেকটা পরিবারেই কাছেই কিছু না কিছু স্বর্ন থাকেই। আমাদের দেশে প্রত্যেকেই সাংস্কৃতিক মনা লোক। আর স্বর্ণ কিন্তু সংস্কৃতির একটা অঙ্গ। অলংকার সংস্কৃতির সাথে সংযুক্ত।

বিএমটিআই নিউজ : দেশবাসী আপনাকে একজন সফল মানুষ হিসেবে জানে আপনার এই সফলতার গল্প জানতে চাচ্ছি?

কাজী সিরাজুল ইসলাম: আমি তো মনে করি সফল হওয়ার জন্য পরিশ্রমী হতে হবে, বিশ্বাস যোগ্যতা থাকতে হবে। জীবনে ঝুঁকি নিতে হবে এবং সৎ থাকতে হবে।

বিএমটিআই নিউজ : আপনি একজন বিশিষ্ট্য শিক্ষানুরাগী মানুষ আপনার একটি পরিচিতি আছে? আপনি কাজী সিরাজুল ইসলাম মহিলা ডিগ্রী কলেজ সহ অগনিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান করেছেন, আগামীতে বড় কোন নের্তৃত্বেও মালা আপনার গলায় পড়িয়ে দেওয়া হলে আপনি শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়নের আপনার কোন চিন্তা ভাবনা আছে কি?

কাজী সিরাজুল ইসলাম: আমরা দুর্বল ছিলাম টেকনোলজির সাইটে। সেই সাইটে কিন্তু টেকনিক্যাল স্কুল, কলেজ, ইউনিভার্সিটি অনেকগুলো হয়ে গেছে। টেকনোলজির বিষয়ে আরো নজর দিতে হবে। আর শিক্ষাব্যবস্থায় বাংলার প্রতি জোর দিতে হবে এবং সেই সাথে ইংলিশেরও চর্চা করতে হবে। বিএমটিআই নিউজ : সবাই জানে আপনি একজন দানবির মানুষ আপনার কাছে এসে কেউ নিরাশ হয়না এই বিষয়টা আপনি কিভাবে মেইনটেন্ট করেন?

কাজী সিরাজুল ইসলাম: বিশেষ করে আমার কাছে যারা আসে এরা বেশির ভাগে চিকিৎসার জন্য। চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি হয়, তারা অনেকসময় টাকা দিতে পারেনা। দেখা গেল আমার যে লাভ হয় পুরো টাকাই দিয়ে দিতে হয়।

বিএমটিআই নিউজ : স্যার আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ আপনার মূল্যবান সময় দেওয়ার জন্য। কাজী সিরাজুল ইসলাম: আপনাদের এবং বিএমটিআই নিউজকেও অনেক অনেক ধন্যবাদ।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
একটা নদী উপহার পেয়েছি রটনার মত ছড়িয়ে যাচ্ছে , গুজব না সত্যি ! আমার একটা নদী আছে যদিও আমি নদী চাইনি চেয়েছি চাঁদ , তবু নদীই পেলাম বিস্তারিত
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
আশুলিয়ার নিশ্চিন্তপুর গ্রামের এক গৃহবধু দেবর ও ভাশুরের নির্যাতন, হয়রানিমূলক মামলাসহ বিভিন্ন কুৎসার হাত থেকে নিজের পরিবারের সদস্যদের বাঁচাতে সংবাদ সম্মেলন বিস্তারিত
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
ড্রিম ডিভাইজারের নিজস্ব উদ্ভাবিত স্বপ্ন- সুশিক্ষা- সুযোগ মডেলে সুশিক্ষায় স্বপ্নবুননে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করে। সুশিক্ষায় স্বপ্নবুননে বিশেষ আয়োজন হচ্ছে স্বপ্ন-আড্ডা। স্বপ্ন আড্ডার বিস্তারিত
© স্বত্ব বিএমটিআইনিউজ ২০১৫ - ২০১৭
সম্পাদক :
মিঞা মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক : শাহআলম শুভ
৩৭৩,দিলু রোড (তৃতীয় তলা)মগবাজার, ঢাকা-১২১৭
ফোন: ০২৯৩৪৯৩৭৩, ০১৯৩৫ ২২৬০৯৮
ইমেইল:bmtinews@gamil.com