এজাজ আহমেদ। সবার কাছে রাসেল নামেই বেশি পরিচিত। তবে স্মার্ট বয় বলেও খ্যাতি আছে।  গুড এডুকেটর, উপস্থাপক, স্পিকার, এইচ.আর.এম সহ অনেক দিকেই যোগ্যতা অর্জন করে দায়িত্ব পালন করছেন ড্রিম ডিভাইজারে। 



স্বপ্ন দেখছেন ড্রিম ডিভাইজারকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে  পৌঁছে দেওয়ার । স্বপ্ন এবং সুশিক্ষা নিয়ে কাজ করছেন সুশিক্ষার প্লাটফর্ম ‘ড্রিম ডিভাইজার’ - এ। স্বপ্নমাখা এই তরুণের সাথে গল্প করেছেন ‘বিএমটিআই নিউজ’ এর স্টাফ রিপোর্টার আব্দুল্লাহ আল মামুন





কেমন অাছেন- 

আলহামদুলিল্লাহ্‌, ভাল আছি।



অাপনার পড়াশোনা নিয়ে কিছু বলেন-

সরকারি তিতুমীর কলেজে উদ্ভিদ বিজ্ঞানের শেষ বর্ষের ছাত্র আমি। পড়াশুনার পাশাপাশি গুড এডুকেশন প্লাটফর্ম ড্রিম ডিভাইজার এ গুড এডুকেটর হিসেবে আছি। এছাড়াও বিভিন্ন কোর্স আর সেমিনারে অংশগ্রহণ করে নিজেকে আরও যোগ্যতা সম্পন্ন করার চেষ্টা করে যাচ্ছি। 



ছোটবেলার মজার কোন গল্প-

হাহাহা......। অনেক মজার গল্পের মাঝে যা মনে আসলে এখনো হাসি আসে......।

চাচাত ভাইরা মিলে ১ টাকা করে  লাল অথবা নীল টক আইসক্রীম কিনে খেতাম, শুধুমাত্র ঠোঁট রঙ করার জন্য।  খেয়ে একজন আরেকজনকে দেখাতাম কার ঠোঁট আর জিহ্বা কত রঙ্গিন হয়েছে। 



সিলেটের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য নিয়ে কিছু বলেন- 

সবুজ চাদরে ঢাকা উঁচু উঁচু পাহাড় আর চা বাগানের আঁকা-বাঁকা পথ যেকোনো মানুষের মনকেই সতেজ করে তুলবে। 



পড়াশোনার পাশাপাশি কি করছেন-

পড়াশুনার পাশাপাশি গুড এডুকেশন প্লাটফর্ম ড্রিম ডিভাইজার এ গুড এডুকেটর হিসেবে আছি।

আর সিলেবাসের বাহিরের বই পড়ছি , জানছি সাথে জানাচ্ছি নিজের জ্ঞান কলেজ আড্ডার মাধ্যমে। 



ড্রিম ডিভাইজারের মানব সম্পদ বিভাগ নিয়ে বলুন-



ড্রিম ডিভাইজারে এ এক অন্যরকম অভিজ্ঞতা। অল্প বয়সে মানব সম্পদ বিভাগ দেখছি।  টিমমেটদের বিভিন্ন শিক্ষা বিষয়ক ট্রেইনিং বা সেমিনারে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। 



ভবিষ্যতে ড্রিম ডিভাইজার নিয়ে অাপনার পরিকল্পনা-

আপাতত নিজের দেশে ড্রিম ডিভাইজারকে প্রতিষ্ঠিত করছি। তবে খুব শীঘ্রই আন্তর্জাতিক পর্যায়ে গুড এডুকেশনের ছোঁয়া দিতে চাই। কারন, আমার প্লাটফর্ম , আমি অবশ্যই বিশ্বের সবচেয়ে বড় এডুকেশন প্লাটফর্ম হিসবে দেখতে চাই।  তাই পরিশ্রমও চলছে দিন-রাত। 



অাপনার স্বপ্ন কি-

একজন গুড এডুকেটর হিসেবে সমাজে নিজের একটা ভ্যালু তৈরি করতে চাই। 



স্বপ্নপূরণে কি ধরনের কাজ করছেন- 

সর্বগুণে গুণান্বিত বড় ভাই রাব্বী ভাইকে অনুসরণ করছি। আর ভাল কাজের মাধ্যমে নিজের ফলোয়ার তৈরি করছি। 



সুশিক্ষাকে কিভাবে বিশ্বে ছড়িয়ে দিবেন- 

একবিংশ শতাব্দিতে ইন্টারনেট আর সোশ্যাল মিডিয়াকে কাজে লাগিয়ে সাড়া বিশ্বব্যাপী সুশিক্ষাকে ছড়িয়ে দিব। 

 

কলেজ নিয়ে ড্রিম ডিভাইজার কি কোন কাজ করছে-

হ্যাঁ। আমি নিজেই কলেজ আড্ডার একজন কো-অরডিনেটর এবং স্পিকার হিসেবে এম্বিশন নিয়ে কথা বলি। কেননা, কলেজের পরেই মূলত একজন শিক্ষার্থীর জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু হয়। তাই এর গুরুত্বকে মাথায় রেখেই ড্রিম ডিভাইজার কলেজে আড্ডার আয়োজন করে থাকে।



ফেসবুকে অাপনার ড্রিম ডিভাইজারের অনুষ্ঠান উপস্থাপনার ছবি দেখি এই সম্পর্কে কিছু বলেন-

হাহাহা......। উপস্থাপনার মজাটাই আলাদা। আসলে মাঝে মাঝে আমাদের ড্রিম ডিভাইজারের আড্ডা উইথ আইকন অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করার চেষ্টা করি।  



অাপনি যেহেতু সিলেটি পোলা, সিলেটের কিছু দর্শনীয় স্থানের  সাথে অামাদের পরিচয় করিয়ে দেন-



চোখ বন্ধ করলে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে ভেসে উঠে মাধবকুণ্ডু, চা বাগান, রাতারগুল, জাফলং, বিছনাকান্দি, হাকালুকি হাওর, লাউয়াছড়া, হাছন রাজার বাড়ি সহ আরও অনেক কিছু। আমার মতে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি প্রাকৃতিক সৌন্দর্য রয়েছে সিলেটে। কখনো সিলেটে যাওয়া হলে সাত রঙের চা একটু হলেও ছেঁকে আসবেন। 



ধন্যবাদ অাপনাকে-

সাত রঙের চায়ের সাথে আপনাকেও ধন্যবাদ।

আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
একটা নদী উপহার পেয়েছি রটনার মত ছড়িয়ে যাচ্ছে , গুজব না সত্যি ! আমার একটা নদী আছে যদিও আমি নদী চাইনি চেয়েছি চাঁদ , তবু নদীই পেলাম বিস্তারিত
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
আশুলিয়ার নিশ্চিন্তপুর গ্রামের এক গৃহবধু দেবর ও ভাশুরের নির্যাতন, হয়রানিমূলক মামলাসহ বিভিন্ন কুৎসার হাত থেকে নিজের পরিবারের সদস্যদের বাঁচাতে সংবাদ সম্মেলন বিস্তারিত
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
ড্রিম ডিভাইজারের নিজস্ব উদ্ভাবিত স্বপ্ন- সুশিক্ষা- সুযোগ মডেলে সুশিক্ষায় স্বপ্নবুননে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করে। সুশিক্ষায় স্বপ্নবুননে বিশেষ আয়োজন হচ্ছে স্বপ্ন-আড্ডা। স্বপ্ন আড্ডার বিস্তারিত
© স্বত্ব বিএমটিআইনিউজ ২০১৫ - ২০১৭
সম্পাদক :
মিঞা মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক : শাহআলম শুভ
৩৭৩,দিলু রোড (তৃতীয় তলা)মগবাজার, ঢাকা-১২১৭
ফোন: ০২৯৩৪৯৩৭৩, ০১৯৩৫ ২২৬০৯৮
ইমেইল:bmtinews@gamil.com