সামছুল হুদা মুরাদ। সবার কাছে তিনি মুরাদ নামেই বেশি পরিচিত। গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে বেসরকারি নিউজ চ্যানেল সময় টিভিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন। সময় টিভির শুরু থেকেই তিনি যুক্ত আছেন। এছাড়াও সুশিক্ষার প্লাটফর্ম ড্রিম ডিভাইজারে সৃজনশীল গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে সময়-সুযোগমতো ফ্রিল্যান্সিং করে থাকেন। পাশাপাশি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর উপরও রয়েছে তার দারুণ সুখ্যাতি। তরুণ এই গ্রাফিক্স ডিজাইনার এর সাক্ষাৎকার নিয়েছেন ‌'বিএমটিআই নিউজ' এর স্টাফ রিপোর্টার আব্দুল্লাহ আল মামুন



 



কেমন অাছেন- 



আলহামদুলিল্লাহ্ ভাল আছি । 



অাপনার শিক্ষাজীবন নিয়ে কিছু বলেন? 

জীবন সংগ্রামের পাশাপাশি খুব বেশিদূর পড়াশুনা করার মতো সুয়োগ হয়নি, তবে বি.কম পাশ করেছি, আরও পড়াশুনা করার ইচ্ছা আছে ।



ছোটবেলার মজার কোন গল্প- 

কতো ছোটবেলার কথা বলবো! আসলে মজার গল্পের তো শেষ নেই, সবার মজার ধরণ তো এক রকম হয় না। ৬-৭ বছরের একটা কথা মনে পড়লে এখনও একা-একাই হাসি, অপরিচিত কাউকে দেখলে খুব বেশিই লজ্জ্বা পেতাম, তাই আড়াল থেকে পালিয়ে দেখার চেষ্টা করতাম, যখন ধরা পড়ে যেতাম...



 সময় টিভিতে চাকরির দিনগুলো কেমন কাটছে- 

দিন দিন খুব সুন্দর যাচ্ছে, মনে হয় এইতো সেদিন একদল নতুন প্রজম্ম আর গুটি কয়েকজন বিজ্ঞ ব্যাক্তিদের সাথে পথচলার পরিক্রমায় ‌‌‌‘সময়ের প্রয়োজনে সময়’ স্লোগানে সময় অতিবাহিত করছি

 

জীবনের প্রথম অায় বা উপার্জন নিয়ে কিছু বলেন-

সত্যি করে বলতে গেলে এটা আমার সপ্তম শ্রেণীতে হয়েছিল, আমা দাদা আমাদের অল্প একটু (২/৩) শতাংশ জমিতে কাচা মরিচ চাষ করেছিলেন, আমি ক্ষেতে পানি দিচ্ছিলাম, মরিচ ক্ষেতে পানি পচুর পরিমানে দিতে হতো ১ দিন পর পর। আমাদের পাশে প্রতিবেশীও মরিচ চাষ করেছিলেন, তিনি ও একই সময়ে পানি ঢালার সময় অল্প অসুস্থ হয়ে পড়েন, তখন আমি প্রতিবেশীর কাজটিও করি, পরে উনি আমাকে ৪০ টাকার পরিবর্তে ১০ টাকা দেন। আমার জন্য এটা খুবই আনন্দের ছিল।

 

গ্রাফিক্স ডিজাইন সম্পর্কে বলেন-

প্রিন্ট, ওয়েব ও ব্রডকাস্ট জগতে অনতম একটি উপাদান হচ্ছে গ্রাফিক্স। গ্রাফিক্স মানে দৃশ্যমান কিছু উপস্থাপন, সেটা হতে পারে একটি নাম, একটি টার্ম বা পরিচিতি, একটি সাইন বা নিদর্শন (স্মারকচিহ্ন), একটি সিম্বল বা প্রতীক এবং ডিজাইন বা নকশা (পরিকল্পনা) কিংবা সবগুলোর একটি সুসমন্বিত রূপ যা কোনো বিক্রেতা বা বিক্রেতা গোষ্ঠীর পণ্য ও সেবার নিজস্ব পরিচিতি গড়ে তোলে এবং প্রতিযোগীদের চেয়ে আালাদাভাবে উপস্থাপন করে।



গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে চাইলে কি জানতে হবে- 

নির্দিষ্ট কিছু সফট্ওয়্যার এর কাজের কৌশল রপ্ত করা,আর গ্রাফিক্স কি, কেন এবং এর গুরুত্ব সম্পর্কে সামান্য ধারণা থাকলেই গ্রাফিক্স ডিজাইন এর কাজ করা সম্ভব।

 

গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজের ক্ষেত্র- 

অনেক ক্ষেত্র রয়েছে, যেগুলো বহুল পরিচিত ও আকর্ষণীয় শুধু সেগুলো হচ্ছে:

•    প্রিন্ট ডিজাইন

•    ওয়েব ডিজাইন

•    ব্রডকাস্ট ডিজাইন

•    মোশন গ্রাফিক্স

•    আর্কিটেকচারাল ডিজাইন

•    ইন্টোরিয়র ডিজাইন

•    ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইন/প্রোডাক্ট ডিজাইন

•    শিক্ষামূলক টিউটোরিয়াল ডিজাইনার



ওয়েব ডিজাইন সম্পর্কে একটু সংক্ষেপে বলেন- 

ওয়েব ডিজাইন মানে হচ্ছে একটা ওয়েব সাইট দেখতে কেমন হবে বা এর সাধারন রূপ কেমন হবে তা নির্ধারণ করা। ওয়েব ডিজাইনার হিসেবে আপনার কাজ হবে একটা পূর্ণাঙ্গ ওয়েব সাইটের টেম্পলেট বানানো। যেমন ধরুণ এটার লেয়াউট কেমন হবে। হেডারে ...০০ কোথায় মেনু থাকবে, সাইডবার হবে কিনা, ইমেজ গুলো কিভাবে প্রদর্শন করবে ইত্যাদি। ভিন্নভাবে বলতে গেলে ওয়েব সাইটের তথ্য কি হবে এবং কোথায় জমা থাকবে এগুলো চিন্তা না করে, তথ্য গুলো কিভাবে দেখানো হবে সেটা নির্ধারণ করাই হচ্ছে ওয়েব ডিজাইনার এর কাজ। আরএই ডিজাইন নির্ধারণ করতে ব্যবহার করতে হবে কিছু প্রোগ্রামিং, স্ক্রিপ্টিং ল্যাঙ্গুয়েজ এবং মার্কআপ ল্যাঙ্গুয়েজ।



গ্রাফিক্স ডিজাইনে ভিজিটিংকার্ড কি ধরনের ভূমিকা রাখে- 

ভিজিটিং কার্ড অনেক গুরত্বপূর্ণ একটি উপাদান, নিজের পরিচিতি কে বিশেষ ভাবে উপস্থাপন করার জন্য প্রমাণপত্র স্বরূপ সহায়ক একটি মর্যাদা বহন করে।



বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে গ্রাফিক্স ডিজাইন কতটা গুরুত্বপূর্ণ- 

বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে গ্রাফিক্স এর বিকল্প নেই, বিজ্ঞাপনী সময়ে বিজ্ঞাপনী পন্যকে বিশেষ ভাবে উপস্থাপন কিংবা ভিজুয়াল তৈরিতেও গ্রাফিক্স এর গুরুত্ব অপরিসীম।



গ্রাফিক্স সম্পর্কিত অাউটসোর্সিং কাজের কোন ওয়েব সাইট-

অনেক ধরনের কাজের মার্কেটপ্লেস রয়েছে, তবে এক এক কোম্পানীর এক এক রকম কাজের ধরণ, আউটসোর্সিং কাজের টাকা দেয়ার ধরণ ও হরেক রকম, 

তবে বিশ্বস্ত কিছু কাজের লিংক: 

www.market.envato.com

www.upwork.com

www.shutterstock.com 

www.designhill.com

www.99designs.com

www.crowdspring.com



গ্রাফিক্স ডিজাইনে কোন কোন বিষয়ে যত্নবান হবে-

রং, বস্তুনিষ্টতা ও থিম বেইজড কাজ উপস্থাপন করার মনমানসিকতার পাশাপাশি নতুন নতুন সফটওয়্যার কিংবা প্লাগইনস সম্পর্কে ধারণা ও কতিপয় বিশেষ কোন ডিজাইনারদের কাজ পরিদর্শন করা।



যারা অাপনার মতো গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে চায় তারা কিভাবে শিখবে- 

একটা সময় ইন্টারনেট ছিলো না, যখন পেয়েছি ভালো নেটওয়ার্কও ছিলো না, যখন নেটওয়ার্ক পেলাম তখন ইউটিউব ছিলো না, যাও পেয়েছি, তখন ইউটিউব এ খুব বেশি একটা জনপ্রিয় ছিলো না, এখন শুধু ইউটিউব কিংবা গুলনই নয় বাংলাদেশ কিংবা দেশের বাইরে অনেক অনলাইন গ্রাফিক স্কুল, বিশ্ববিদ্যালয় ও অনেক শিক্ষাদানকারী প্রতিষ্ঠান রয়েছে । প্রাথমিক শেখার জন্য অনেক ব্যাক্তিবর্গ, ট্রেনিং সেন্টার, আউটসোর্সিং প্রতিষ্ঠান স্কুল/বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকারিভাবে জেলা শহরগুলোতেও ভোকেশোনাল ট্রেনিং প্রদানকারি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। 



ধন্যবাদ অাপনাকে-

অাপনাকেও ধন্যবাদ।

আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
একটা নদী উপহার পেয়েছি রটনার মত ছড়িয়ে যাচ্ছে , গুজব না সত্যি ! আমার একটা নদী আছে যদিও আমি নদী চাইনি চেয়েছি চাঁদ , তবু নদীই পেলাম বিস্তারিত
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
আশুলিয়ার নিশ্চিন্তপুর গ্রামের এক গৃহবধু দেবর ও ভাশুরের নির্যাতন, হয়রানিমূলক মামলাসহ বিভিন্ন কুৎসার হাত থেকে নিজের পরিবারের সদস্যদের বাঁচাতে সংবাদ সম্মেলন বিস্তারিত
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
ড্রিম ডিভাইজারের নিজস্ব উদ্ভাবিত স্বপ্ন- সুশিক্ষা- সুযোগ মডেলে সুশিক্ষায় স্বপ্নবুননে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করে। সুশিক্ষায় স্বপ্নবুননে বিশেষ আয়োজন হচ্ছে স্বপ্ন-আড্ডা। স্বপ্ন আড্ডার বিস্তারিত
© স্বত্ব বিএমটিআইনিউজ ২০১৫ - ২০১৭
সম্পাদক :
মিঞা মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক : শাহআলম শুভ
৩৭৩,দিলু রোড (তৃতীয় তলা)মগবাজার, ঢাকা-১২১৭
ফোন: ০২৯৩৪৯৩৭৩, ০১৯৩৫ ২২৬০৯৮
ইমেইল:bmtinews@gamil.com