মিঞা মুজিবুর রহমান



 এই প্রথম ইলেক্টোরাল ভোটে বড় ব্যবধানে জয়ী হয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প মারাত্মক প্রতিক্রিয়া, প্রবল বিস্ফোরণ এবং অনাস্থার মুখে পড়েছেন। পপুলার ভোটে জিতেছেন হিলারি আর ইলেক্টোরাল ভোটে জিতেছেন ট্রাম্প। এক অর্থে জনগণের আকাক্সক্ষা মার খেয়েছে স্বল্প সংখ্যকের কাছে। এমন হয়েছিলো পাকিস্তানে ১৯৬৪ সালে, মিস্ ফাতেমা জিন্নাহ বনাম আইয়ুব খানের নির্বাচনে।পপুলার ভোট বেশি ছিলো ফাতেমা জিন্নাহর কিন্তু আইয়ুব খান বেসিকডেমোক্রেসিক সিস্টেমে ইলেক্টোরাল ভোট বোগলদাবা করে প্রেসিডেন্ট হয়েছিলেন। তখন আইয়ুব খানও মিস জিন্নাহর বিরুদ্ধে ভারত প্রীতির অভিযোগ তুলেছিলেন। সাম্প্রদায়িক জিগিরও তুলেছিলেন। যেমন ট্রাম্প নির্বাচনে তুলেছেন বর্ণবাদী জিগির। মিস্ ফাতেমা জিন্নাহ পরাজিত হওয়াতে বাঙালি জনসাধারণের মন সেদিন জখম হয়েছিলো, যেমন হিলারির পরাজয়ে মার্কিন জনগণের মন ঘায়েল হয়ে গেছে। সেদিন ফতোয়া দেয়া হয়েছিলো আইয়ুবের দালাল আলেমদের পক্ষ থেকে যে নারীর রাষ্ট্র পরিচালনা হারাম, তেমনি মার্কিন নির্বাচনে নারী প্রেসিডেন্ট হিসেবে হিলারীকে প্রত্যাখান করা হলো। গণমাধ্যমসূত্রে জানা যাচ্ছে, ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর এক বিপজ্জনক পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দীর্ঘদিনের ঐতিহ্য ভেঙে পুরো যুক্তরাষ্ট্র এখন ট্রাম্প বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল। অগ্নিগর্ভ। গত মঙ্গলবার রাতে ট্রাম্পের বিজয় নিশ্চিত হওয়ার পর পরই বিভিন্ন স্থানে শুরু হয় সহিংস বিক্ষোভ, যা মার্কিন রাজনীতিতে নজিরবিহীন। ওবামা- ক্লিনটন ট্রাম্পকে অভিনন্দন জানিয়েও ক্ষোভ প্রশমিত করতে পারেননি। গত বুধবার,বৃহস্পতিবার ও শক্রবারও ক্ষোভ অব্যাহত ছিলো। ‘ট্রাম্প আমার প্রেসিডেন্ট নন’-এই শ্লোগান দিয়ে, প্লাকার্ড হাতে কয়েক লাখ মার্কিন নাগরিক রাজপথে নেমে আসে। তারা সড়ক অবরোধ করে, অগ্নিসংযোগ ও ভাংচুর করে, পুলিশের ওপর হামলা চালায়। পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়তে বাধ্য হয়। ওদিকে ক্যালিফোর্নিয়া এই নির্বাচন প্রত্যাখান করে স্বাধীনতা ঘোষণা করেছে। প্রায় ২৫/২৬ টি অঙ্গরাজ্যে এ ধরনের বিক্ষোভ চলছে। টালমাটাল হয়ে উঠেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। শতাধিক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আহত হয়েছেন অনেকে। বিক্ষোভ হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাইরের রাষ্টে। মার্কিন প্রবাসী মুসলিমরা আতঙ্কের প্রহর গুণছেন। মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম দেশগুলোতে প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হওয়াতে। রাজপথে নেমে এসেছেন বিশ্বখ্যাত পপগায়ক ম্যাডোনা এবং তার স্ত্রী। প্রশ্ন জেগেছে, ইলেক্টোরাল ভোটের জোরেই যদি কেউ দেশটির প্রেসিডেন্ট হয়ে যান তাহলে পপুলার ভোটের মূল্য কোথায়? সামনে তা হলে কি জনপ্রিয় রাজনীতিবিদরা ধনকুবেরদের ইলেক্টোরাল ভোটের কাছে হারতে থাকবেন? মার্কিন জনগণ কি গণতন্ত্রের বিপক্ষে দাঁড়ালো? না হলে নির্বাচিত প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে কেন প্রত্যাখানের শ্লোগান উঠবে? মূলত ব্যাপারটা আরো গভীরের। জনগণ ভোট দিয়েছে হিলারিকে আর ইলেক্টোরালরা ভোট দিয়েছেন ট্রাম্পকে। মার্কিন জনগণের বিক্ষোভটা প্রকাশ পাচ্ছে মুষ্টিমেয় ইলেক্টোরালদের বিরুদ্ধে। বহমান জ্বলন্ত বিক্ষোভের আয়নায় ভেসে উঠেছে এই প্রশ্ন, কী করে রিপাবলিকান পার্টি ট্রাম্পকে নমিনেশন দিতে পারলো? মূলত সমগ্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ক্ষোভ আগুনের শিখার মতো জ্বলে উঠেছে ট্রাম্পের লাগামহীন কথাবার্তার বিরুদ্ধে। রুচিজ্ঞান, কথার মাত্রাজ্ঞান, সৌন্দর্যবোধ কোনোটাই রক্ষা করেননি ট্রাম্প। এ ছাড়া ট্রাম্প নির্বাচনে বর্ণবাদী বিদ্বেষ প্রচার করে যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে বিভেদের বীজ রোপন করলেন। মার্কিন সাম্রাজ্যবাদী শক্তির গাঁথুনিতেও ট্রাম্প কুঠার মেরেছেন। অনৈক্য দেখা দিয়েছে দেশটিতে। এটা সহজে মিটবে না। এর পরিণাম দেখার জন্য আমাদের অপেক্ষা করতে হবে। আমরা শুভশক্তির জয় কামনা করি।


আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
একটা নদী উপহার পেয়েছি রটনার মত ছড়িয়ে যাচ্ছে , গুজব না সত্যি ! আমার একটা নদী আছে যদিও আমি নদী চাইনি চেয়েছি চাঁদ , তবু নদীই পেলাম বিস্তারিত
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
আশুলিয়ার নিশ্চিন্তপুর গ্রামের এক গৃহবধু দেবর ও ভাশুরের নির্যাতন, হয়রানিমূলক মামলাসহ বিভিন্ন কুৎসার হাত থেকে নিজের পরিবারের সদস্যদের বাঁচাতে সংবাদ সম্মেলন বিস্তারিত
২০ জানুয়ারি ২০১৮
বিত্রমটি আই নিউজ ডেস্ক
ড্রিম ডিভাইজারের নিজস্ব উদ্ভাবিত স্বপ্ন- সুশিক্ষা- সুযোগ মডেলে সুশিক্ষায় স্বপ্নবুননে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করে। সুশিক্ষায় স্বপ্নবুননে বিশেষ আয়োজন হচ্ছে স্বপ্ন-আড্ডা। স্বপ্ন আড্ডার বিস্তারিত
© স্বত্ব বিএমটিআইনিউজ ২০১৫ - ২০১৭
সম্পাদক :
মিঞা মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক : শাহআলম শুভ
৩৭৩,দিলু রোড (তৃতীয় তলা)মগবাজার, ঢাকা-১২১৭
ফোন: ০২৯৩৪৯৩৭৩, ০১৯৩৫ ২২৬০৯৮
ইমেইল:bmtinews@gamil.com